২২ মে থেকে ৩৪তম রবীন্দ্রসংগীত সম্মেলন ও উৎসব

প্রকাশ: May 20, 2015
download (3)

বাঙালীর আপন সংস্কৃতিচর্চা ও প্রসারের লক্ষ্যে যাত্রা শুরু হয়েছিল ১৯৭৯ সালে। বাঙালীর মননের রূপকার কবিগুরু রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের সৃষ্টিকে উপজীব্য করে গঠিত হয় জাহিদুর রহিম স্মৃতি পরিষদ। দেশব্যাপী বৃহত্তর পরিসরে কর্মকান্ড পরিচালনার লক্ষ্যে পরবর্তীতে রবীন্দ্রনাথের নাম যুক্ত করে সংগঠনের নামকরণ হয় জাতীয় রবীন্দ্রসঙ্গীত সম্মিলন পরিষদ। আগামী শুক্রবার থেকে ধানমন্ডির ছায়ানট সংস্কৃতি ভবনে শুরু হচ্ছে পরিষদের তিন দিনব্যাপী চৌত্রিশতম বার্ষিক অধিবেশন। আর অধিবেশনের ভেতর দিয়ে অনুষ্ঠিত হবে জাতীয় রবীন্দ্রসঙ্গীত সম্মেলন ও প্রতিযোগিতা। কিশোর ও সাধারণ এই দুই বিভাগে অনুষ্ঠিত হবে প্রতিযোগিতা। এবারের অধিবেশনের আহ্বান ‘এখনও ঘোর ভাঙে না তোর’।
চৌত্রিশতম অধিবেশনের কর্মসূচি তুলে ধরে জানানো হয়, আগামী ২২ মে শুক্রবার থেকে ২৪ মে রবিবার ছায়ানট ভবনে চলবে কর্মসূচি। শুক্রবার সকালে ‘এখনো ঘোর ভাঙে না তোর’ শীর্ষক বোধন সংগীতের মধ্য দিয়ে শুরু হবে সম্মেলনের আনুষ্ঠানিকতা। শুক্রবার সকাল ১০টায় সম্মেলন উদ্বোধন করবেন শিক্ষাবিদ ও সংস্কৃতিকর্মী অধ্যাপক ড. অনুপম সেন। সম্মেলনের প্রধান অতিথি থাকবেন কথাসাহিত্যিক ও কবি সৈয়দ শামসুল হক। এবার প্রবীণ শিল্পী সুধীন দাশ ও প্রকৃতিবিদ দ্বিজেন শর্মাকে গুণীজন সম্মাননা ও রবীন্দ্রপদকে ভূষিত করা হবে। তিন দিনের এই অধিবেশনে পৃষ্ঠপোষকতা দিচ্ছে স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড ব্যাংক ও সানিডেল স্কুল।
গত ১৯ মে মঙ্গলবার ছায়ানট সংস্কৃতি ভবন মিলনায়তনে পরিষদ আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানানো হয়। এতে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন পরিষদের সাধারণ সম্পাদক লাইসা আহমদ লিসা। বক্তব্য দেন পরিষদের সহসভাপতি আ ব ম নূরুল আনোয়ার। উপস্থিত ছিলেন পরিষদের কোষাধ্যক্ষ সোহরাব হোসেন, সহসভাপতি মিতা হক ও লিলি ইসলাম এবং সম্পাদকমণ্ডলীর সদস্য গোলাম রব্বানী।
চৌত্রিশতম অধিবেশনের কর্মসূচি তুলে ধরে জানানো হয়, আগামী শুক্র, শনি ও রবিবার ছায়ানট ভবনে চলবে কর্মসূচি। শুক্রবার সকালে ‘এখনো ঘোর ভাঙে না তোর’ শীর্ষক বোধন সংগীতের মধ্য দিয়ে শুরু হবে সম্মেলনের আনুষ্ঠানিকতা। সকাল ১০টায় সম্মেলন উদ্বোধন করবেন শিক্ষাবিদ ও সংস্কৃতিকর্মী অধ্যাপক ড. অনুপম সেন। সম্মেলনের প্রধান অতিথি থাকবেন কথাসাহিত্যিক ও কবি সৈয়দ শামসুল হক। এবার গুণীজন সম্মাননা ও রবীন্দ্রপদকে ভূষিত করা হবে প্রবীণ শিল্পী সুধীন দাশ ও প্রকৃতিবিদ দ্বিজেন শর্মাকে। তিন দিনের এই অধিবেশনে সহায়তা দিচ্ছে স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড ব্যাংক ও সানিডেল স্কুল।
এবারের আয়োজনে অংশ নেবেন দেশের নানা অঞ্চল থেকে আসা ছয় শতাধিক শিল্পী, সংস্কৃতিকর্মী ও সংগঠক। উদ্বোধনী আনুষ্ঠানিকতা শেষে সকাল সাড়ে ১০টায় শুরু হবে সংগীতানুষ্ঠান। আর তিন দিনের সান্ধ্য অধিবেশন সাজানো হয়েছে গুণীজনের সুবচন রবিরশ্মি, আবৃত্তি, পাঠ, নৃত্য ও গান দিয়ে। অধিবেশনের দ্বিতীয় দিন শনিবার বিকেল ৪টায় অনুষ্ঠিত হবে সেমিনার। এবারের বিষয় আবুল মোমেনের লেখা প্রবন্ধ ‘রাষ্ট্র ও ধর্ম : রবীন্দ্র ভাবনা ও বর্তমান বাস্তবতা’। এ পর্বে সভাপতিত্ব করবেন জাতীয় রবীন্দ্রসংগীত সম্মিলন পরিষদের সভাপতি সন্জীদা খাতুন।

You must be logged in to post a comment Login

মন্তব্য করুন