বর্জ্য থেকে বিদ্যুৎ উৎপাদন করতে চান আনিসুল

প্রকাশ: June 14, 2015
Annisul Huq

ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আনিসুল হকের বর্জ্য থেকে বিদ্যুৎ উৎপাদনের পরিকল্পনা নিয়ে এই প্রতিবেদনটি ১৪ জুন ২০১৫ তারিখের সমকালে প্রকাশিত হয়েছে, যা আমরা ঢাকার পাঠকদের জন্য তুলে ধরা হল-

রাস্তায় বর্জ্যের দুর্গন্ধ থেকে আগামী বছরের জানুয়ারির মধ্যে নগরবাসীকে মুক্তি দেওয়ার চিন্তা করছেন ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের প্রথম মেয়র আনিসুল হক। ঢাকার বিপুল পরিমাণ বর্জ্য থেকে বিদ্যুৎ উৎপাদনের পরিকল্পনাও রয়েছে তার। ইতিমধ্যে নতুন মেয়রের এই পরিকল্পনা বাস্তবায়নে কারিগরি সহায়তা দিতে আগ্রহ দেখিয়েছে চীন। শনিবার রাজধানীতে চীনের একটি প্রতিষ্ঠানের আয়োজিত ‘টেকসই জ্বালানির ভবিষ্যৎ’ শীর্ষক দ্বিতীয় আন্তর্জাতিক সম্মেলনের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে দেওয়া বক্তব্যে নিজের পরিকল্পনার কথা তুলে ধরেন আনিসুল। তিনি জানান, ১ জানুয়ারির মধ্যে তার করপোরেশন এলাকায় ৭২টি মধ্যবর্তী স্টেশন করতে চান তিনি। যেখানে প্রথমে বাসাবাড়ির বর্জ্য জমা করা হবে। সেখান থেকে পরে বর্জ্য যাবে মূল ভাগাড়ে।

রাজধানীতে সাধারণত বাসাবাড়ির বর্জ্য সংগ্রহ করা হয় ভ্যানগাড়ির মাধ্যমে। এসব বর্জ্য এনে ফেলা হয় বিভিন্ন রাস্তায় উন্মুক্তভাবে। এসব স্থান থেকে সিটি করপোরেশনের বড় বড় ট্রাকে করে ময়লা নিয়ে যাওয়া হয় রাজধানীর উপকণ্ঠে ভাগাড়ে।

এভাবে উন্মুক্ত স্থানে বর্জ্য ফেলায় একদিকে যেমন পরিবেশ দূষিত হচ্ছে, অন্যদিকে পথচারীদেরও ভোগান্তি সহ্য করে চলতে হয় পথ।

রাজধানীতে দৈনিক প্রায় পাঁচ হাজার টন বর্জ্য সংগ্রহ করা হয়।

বিপুল পরিমাণ বর্জ্য ব্যবস্থাপনাকে কঠিন কাজ উল্লেখ করে মেয়র আনিসুল হক বলেন, ‘এটা সহজ নয়। আমাদের পর্যাপ্ত জমি নেই।’

মধ্যবর্তী স্টেশন করতে নিজের সিটি করপোরেশনের অধীন ৩৬টি ওয়ার্ডেই জায়গার ব্যবস্থা করার চেষ্টা করবেন বলে জানান তিনি।

নতুন মেয়র বলেন, ‘আমার লক্ষ্য হচ্ছে বর্জ্য ব্যবস্থাপনা এবং বর্জ্যের ব্যবহার। ঢাকার বর্জ্য ব্যবহার করে কমপক্ষে ১০০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদন সম্ভব।’

সূত্র: সমকাল

You must be logged in to post a comment Login

মন্তব্য করুন